avertisements

যদি হেরে যাই, তাহলে আমাকে দেশ ছাড়তে হবে : ট্রাম্প

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশ: ০৩:১৭ পিএম, ১৯ অক্টোবর,সোমবার,২০২০ | আপডেট: ০৯:৪৪ এএম, ২৫ নভেম্বর, বুধবার,২০২০

Text

করো’না সং’ক্র’মণে বিশ্বে শীর্ষে পৌঁছেছে আমেরিকা। অর্থনীতি পড়েছে মন্দার ক’ব’লে। বর্ণবৈ’ষম্যের বি’রু’'দ্ধে আ’ন্দো’লনে উ’ত্তা’ল হয়েছে দেশ। এই অবস্থায় দ্বিতীয়বার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার জন্য প্রচার

চালাচ্ছেন রিপাবলিকান দলের প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি জর্জিয়া প্রদেশের ম্যাকন শহরে নির্বাচনী জনসভা করেন। প্রায় দু’ঘণ্টা ভাষণ দেন তিনি। অতিমহা'মা’রী থেকে বাণিজ্য, সব বি'ষয় নিয়েই তিনি মন্তব্য করেন।

তবে তার ভাষণের বড় অংশ জুড়ে ছিল ব্যক্তিগত ক্ষো’ভের কথা। ট্রাম্পের দাবি, তার করো’না সং’ক্র’মণ হয়েছে শুনে খুশি হয়েছিলেন বিরো’ধীরা। একটি মিডিয়া গোষ্ঠী ও প্রযুক্তি সংস্থা ক্রমাগত তার ক্ষ’তি করার চেষ্টায় আছে। এরপরেই তিনি বলেন, ‘যদি ভোটে হেরে যাই, তাহলে হয়তো আমাকে দেশ ছেড়ে যেতে হবে।’ ভোটারদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমি যদি ভোটে হেরে যাই, কী 'হতে পারে বলে আপনারা মনে করেন? আমা'র মনে হয়, সেক্ষেত্রে আমি হয়তো

দেশে থাকতে পারব না।’ নির্বাচনী তহবিলে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী জো বিডেনের তুলনায় ট্রাম্প অনেক কম অর্থ সংগ্রহ করেছেন। ট্রাম্পের দাবি, ‘আমি বিশ্বের গ্রে'টেস্ট ফান্ড রেইজার। কিন্তু ইচ্ছা করে নির্বাচনী তহবিলে বেশি অর্থ সংগ্রহ করিনি।’ একটি সূত্রে জানা যায়, বিডেন তুলেছেন ৩৮ কোটি ৩০ লক্ষ ডলার। ট্রাম্প তুলেছেন ২৪ কোটি ৭০ লক্ষ ডলার। এর আগে ট্রাম্প এক সাক্ষাত্‍কারে দাবি করেন, তিনি যদি না জেতেন, তাহলে ধ’রে নেবেন ভোটে

জালি’য়াতি হয়েছে। হোয়াইট হাউসে সাংবাদিক বৈঠকে ট্রাম্পকে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন, আপনি যদি ভোটে হারেন, তাহলে কি জয়ী প্রার্থীর হাতে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষ’মতা হস্তান্তর করবেন? ট্রাম্প জবাবে বলেন, তিনি হারতেই পারেন না। যদি হারেন তাহলে ধ’রে নিতে হবে মেল-ইন ভোটিং-এ কোনও জালি’য়াতি হয়েছে। অনুপস্থিত ভোটাররা পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে ব্যালটগু'লি ডাকে পাঠিয়ে দেন। তাকে বলে মেল-ইন ভোট। ওই ধ’রনের ভোটে কখনও ব্যা’পক জা’লিয়াতি হয়েছে বলে প্রমাণ নেই। কিন্তু ট্রাম্পের দাবি, তিনি যদি পরা’জিত হন, তার মানে এই নয় যে, আমেরিকান ভোটারদের এক বড় অংশ তার বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন। তার পরাজয়ের অর্থ, অনুপস্থিত ভোটারদের ডাকে পাঠানো ভোট নিয়ে ব্যা’পক জা’লিয়াতি হয়েছে। ট্রাম্পের কথায়, ‘আমর'া দেখতেই পাব কী হচ্ছে। আপনারা জানেন, আমি বহুদিন ধ’রে ব্যালটের বিরু'দ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে আসছি। এই ব্যালট থেকেই সব গন্ডগোলের সূত্রপাত।’ এক সাংবাদিক প্রশ্ন করেন, আমেরিকায় এখন নানা অশান্তি চলছে। এই অবস্থায় কি আপনি শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন? ট্রাম্প বলেন, ‘আগে ব্যালটকে বিদায় করুন, তারপরে দেখবেন, খুব শান্তিতে ক্ষমতা হস্তান্তর হচ্ছে।’

বিষয়:

আরও পড়ুন

avertisements