Main Menu

গোপালগঞ্জের সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতার নামে বয়স্ক ভাতার কার্ড!

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় বিত্তশালী এক আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান পেয়েছেন বয়স্ক ভাতার কার্ড । বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পরে গোটা ইউনিয়ন ব্যাপী চলছে আলোচনা- সমালোচনার ঝড়।

জানাগেছে, উপজেলার কলাবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান চারু চন্দ্র গাইনের নামে ২০১৮সালে উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর থেকে বয়স্ক ভাতার কার্ড ইস্যু করা হয়েছে।

অপরদিকে এই ইউনিয়নেই অনেক দরিদ্র ব্যক্তি এখনও বয়স্ক ভাতার কার্ড পায়নি। চারু চন্দ্র গাইনের পিতা মৃত চিত্তরঞ্জন গাইনও কলাবাড়ি ইউনিয়নের একাধিকবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন। এছাড়াও চিত্তরঞ্জন গাইন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। চারু চন্দ্র গাইন কিভাবে বয়স্ক ভাতার কার্ড পেলেন তা নিয়ে এলাকাবাসী প্রশ্ন তুলেছেন।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে কলাবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের এক নেতা বলেন, চারু চন্দ্র গাইন কলাবড়ি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান। তার দুটি ছেলে। বড় ছেলে চয়ন গাইন ভারতে ব্যবসা করেন। ছোট ছেলে বিষ্ণু গাইন বাংলাদেশে থাকেন। বিষ্ণু গাইন বেসিক ব্যাংকে অফিসার পদে চাকরি করেন। চারু চন্দ্র গাইন পৈত্রিক সুত্রে পাওয়া অনেক সম্পাদের মালিক। তিনি কি ভাবে বয়স্ক ভাতার কার্ড পেলেন তা আমাদের বোধগম্য নয়।

এ বিষয়ে জানার জন্য কলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাইকেল ওঝার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন প্রকার মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

বয়স্ক ভাতার কার্ড পাওয়া চারু চন্দ্র গাইন বলেন, আমি কেন বয়স্ক ভাতার কার্ড করবো?। পুরো বছরে আমি যে ভাতা পাবো তাহা আমার একদিনের পকেট খরচও না। কি ভাবে আমার নামে বয়স্ক ভাতার কার্ড হয়েছে তাহা আমার জানা নেই।

কলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সুনীল চন্দ্র বাড়ৈ বলেন, কলাবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান চারু চন্দ্র গাইন বয়স্ক ভাতার জন্য নিজে আমাদের পরিষদে এসে আমার কাছে তার ছবি ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দিয়েছিলেন। সে মোতাবেক আমরা তার কাগজপত্র উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরে জমা দিয়ে ছিলাম। তার নিজ ইচ্ছাই তার নামে বয়স্ক ভাতার কার্ড হয়েছে।

উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মো: রফিকুল হাসান শুভ বলেন, আমি সম্প্রতি কোটালীপাড়া উপজেলায় যোগদান করেছি। আমি আসার পর এখন পর্যন্ত এখানে কোন ভাতার কার্ড প্রদান করা হয়নি। পূর্বে ভাতার কার্ড প্রদানে যদি কোন অনিয়ম হয়ে থাকে তাহা তদন্তপূর্বক নীতিমালা অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT