Main Menu

সিডনিতে চট্রগ্রাম উৎসব ও মেজবান অনুষ্ঠিত

গত  ২৭ অক্টোবর অস্ট্রেলিয়াতে বসবাসরত বৃহত্তর চট্রগ্রামবাসীদের এক বিশাল মিলনমেলা " মেজবান ও চট্রগ্রাম উৎসব ২০১৯"  অনুষ্ঠিত হয়েছে । এই মেজবানে তথা চট্রগ্রাম উৎসবে সিডনির লিভারপুলের উইথলাম লেইস্যুর সেন্টারে সিডনির  বাংলাদেশি কমিউনিটির বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও ধর্মীয় সংগঠনের নেতারা ছাড়াও সকল শ্রেণি, ধর্ম ও পেশাজীবী মানুষের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। মেজবানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। মেজবানে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে  সম্মাননা ক্রেস্ট উপহার দেয় বৃহত্তর চট্টগ্রাম সমিতির সদস্যরা।মেজবানের  আয়োজনকে প্রবাসী চট্টলাবাসীর  তাদের ঐত্যিহের অংশ হিসাবে দেখে। তাই তো আয়োজকরাও তাদের সাধ্যমত চেষ্টা করেন যাতে কোনো অতিথি অসন্তুষ্ট হতে না পারেন। তারই অংশ হিসাবে দেশ থেকে উড়িয়ে এনেছিলেন চট্রগ্রামের বিখ্যাত বাবুর্চী আবুল হোসেনকে। 


অনুষ্ঠানে  সাদা ভাতের সাথে  ঐতিহ্যবাহী চাঁটগাইয়া মেজবানের গরুর মাংস। মুরগীর মাংসের সাথে বুটের ডাল ও গরুর নেহারি পরিবেশিত হয় ।  আর বিরতির পর  চায়ের সাথে চট্টগ্রামের বেলা বিস্কুট  ও জর্দা ভাত । আড়াই সহাস্রাধিক মানুষের সরব ও হাস্যোজ্জল উপস্থিতি ও আহার গ্রহন বাংলার সুন্দরী চাঁটগাঁর ঐতিহ্যে এক আনন্দঘন পরিবেশের রুপায়ন করে। এই আয়োজন দুপুর ২টা থেকে আরাম্ভ করে একটানা বিকেল চারটা অবধি চলে  ।

রেজওয়ান চৌধুরী ও সাদেক চৌধুরীর সঞ্চালনায় মেজবানের পূর্বে সংক্ষিপ্ত পরিসরে বক্তব্য রাখেন ডঃ আনিসুজ্জামান,নাথান হ্যাগারী, ব্যারিস্টার মনোয়ার, ল্যাকেম্বার সেস্ট এমপি জিহাদ দীব,  অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল বিরোধী দলীয় নেতার প্রতিনিধি এ্যানি স্টানলি এমপি,  ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল,  হাসান মাহমুদ চৌধুরী সিআইপি, বৃহত্তর চট্রগ্রাম  সমিতির সভাপতি মোঃ আলম, সাধারণ সম্পাদক ইফতেখার উদ্দিন ইফতু সহ অস্ট্রেলিয়ার মূলধারার জনপ্রতিনিধিগন।

বিরতির পর শুরু হয় চট্টগ্রামের সন্তান ও দেশের জনপ্রিয় শিল্পী তপন চৌধুরীর একক সংগীতানুষ্ঠান। এই সময় তিনি একে একে পরিবেশন করে, সে যে এই বিরহের অন্তর,তুমি আমার প্রথম সকাল, এ এমন পরিচয়, কতদিন কত আশা, মুখরিত জীবনের চলার পথে, আমি সব কিছু ছাড়তে পারি তোমাকে ছাড়াতে পারব না, দোজখের দারোগা সহ জনপ্রিয় সব গান। 
আয়োজকরা জানিয়েছেন মেজবান থেকে অর্জিত অর্থের অর্ধেক ওয়েস্টমিড  চিলড্রেনস হসপিটালের চ্যারিটি ফান্ডে দান করা হবে।

চট্রগ্রাম উৎসব ২০১৯  উপলক্ষে আয়োজকরা 'সাম্পন' নামে স্মরণিকা প্রকাশ করেন। বড় পরিসরের এই আয়োজনে খাবার প্রস্তুত ও পরিবেশন দলের নেতৃত্ব দেন এস এম মোর্শেদ এবং তার দলের সদস্যরা, গেট এবং আইটি ম্যানেজমেন্ট দলে ছিলেন আসিফ, রিয়াদ ও তাদের দল । ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট লোকমান, রুবেল এবং তাদের দল । এছাড়া আরও অনেক স্বেচ্ছাসেবক  অত্যন্ত কঠোর পরিশ্রম করে চট্রগ্রাম উৎসব ২০১৯  সার্থক ও উৎসবমুখর করে তোলেন।  এদিকে মেজবান ও চট্রগ্রাম উৎসব ২০১৯ সফল করার জন্য আয়োজক সংগঠন বৃহত্তর চট্রগ্রাম সমিতি অস্ট্রলিয়া এক বিবৃতিতে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যাবাদ জানিয়েছেন।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT