Main Menu

সুইডিশ পার্লামেন্ট নির্বাচন ও ফলাফলে সরকার গঠনে সমস্যা

মহিবুল ইজদানী খান ডাবলু; গত ৯ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হওয়া সুইডিশ নির্বাচনে জাতীয় সংসদের ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছেl জাতীয় সংসদে ৩৪৯ আসনের মধ্যেরেড গ্রিন জোটে লেবার পার্টি ১০০  লেফট পার্টি ২৮ ও গ্রিন পার্টি ১৬ আসন লাভ করেছেl লেবার পার্টি ২০১৪ নির্বাচনের তুলনায় ১৩ ও গ্রিন পার্টি ৯ আসন হারিয়েছেl তবে লেফট পার্টি সেই তুলনায় ৭ আসন বেশি পেয়েছেl

 

অন্যদিকে ডানপন্থী এলাইন্সে মোডরেট ৭০ সেন্টার ৩১  লিবারেল ২০ ও ক্রিস্ট ডেমোক্রেট ২২ আসন লাভ করেছেl তবে মোডরেট ২০১৪ নির্বাচনের তুলনায় ১৪আসন হারিয়েছেl সেই তুলনায় লিবারেল ১  সেন্টার ৯ ও ক্রিস্ট ডেমোক্রেট ৬ আসন বেশি পেয়েছেl এই দুই জোটের বাহিরে সুইডেন ডেমোক্রেট গত নির্বাচনেরতুলনায় ১৩ আসন বৃদ্ধি করে  ৬২ আসন পেয়ে  সুইডিশ পার্লামেন্টে তৃতীয় স্থানে রয়েছেl চূড়ান্ত নির্বাচনী ফলাফলে ডানন্থী জোট পেয়েছে ১৪৩ আর বামপন্থী জোটপেয়েছে ১৪৪l দুই জোটের মধ্যে কোনো জোট  ১৭৫ আসন পেলে সংখাগরিষ্ঠতা লাভ করতে পারতোl

 

এখন বহিরাগত বিরোধী রাজনৈতিক দল সুইডেন ডেমোক্রেটের উপর দুই জোটকেই সরকার গঠনে নির্ভর করতে হচ্ছেl এই সুযোগের সৎবেবহার করে ক্ষমতারঅংশীদার হওয়ার কৌশল অবলম্বন করেছে বহিরাগত বিরোধী রাজনৈতিক দল সুইডেন ডেমোক্রেটl নির্বাচনে সুইডেন ডেমোক্রেট ৬২ আসন লাভ করায় তারাঅন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোকে সরকার গঠনে তাদের সাথে আলোচনা করার দাবি জানিয়ে আসছেl

 

সুইডেনের নিয়ম অনুসারে যে দল জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বেশি আসন লাভ করবে সেই দল সরকার গঠনের সুযোগ থাকলেও এবারের ফলাফলে দুই জোটের ব্যবধানমাত্র একটি আসনের পার্থক্য হওয়াতে দুই পক্ষই এখন সরকার গঠনে উৎসাহিত হয়ে পড়েছেl

 

এখানে উল্লেখযোগ্য যে ২০০২ থেকেই সুইডেন ডেমোক্রেটকে পাশ কাটিয়ে অন্নান্য সাতটি দল নিজেদের মধ্যে কিছুটা ছাড় দিয়ে মাইনোরিটি সরকার গঠন করেদেশ পরিচালনা করে আসছেl তবে এবারের ফলাফলে মাত্র একটি আসনের ব্যবধান হওয়ায় দুই জোটই সরকার গঠনে এখান আগ্রহ প্রকাশ করেছেl এবারইপ্রথমবারের মতো এধরণের নিয়মের ভাঙ্গন ধরার সম্ভবনা দেখা দিয়েছেl

 

 

এদিকে নির্বাচন পূর্বে কোনো দলই সুইডেন ডেমোক্রেটের সমর্থন নিয়ে সরকার গঠন করবে না বলে প্রকাশ্যে মন্তব্য করলেও এখন ডানপন্থী এলাইনসের কোনোকোনো দলের সুর অন্যদিকে যাওয়ার সম্ভবনা দেখা দিয়েছেl সুইডেন ডেমোক্রেট ইতিমধ্যে সরকার গঠনে রক্ষণশীল দল মডারেটকে সমর্থন জানাবে বলে আভাসদিয়েছেl ক্রিস্ট  ডেমোক্রেট  ও  মডারেট  এখন  সুইডেন  ডেমোক্রেটের  সমর্থন  নিয়ে  সরকার  গঠনে পরোক্ষভাবে  আগ্রহ  প্রকাশ  করলেও লিবারেল  ও  সেন্টার  এখন  পর্যন্ত  তাদের  পূর্বের  কোথায়  অটল  রয়েছেl দল দুইটি সবসময় বলে এসেছে সুইডেন ডেমোক্রেটের সমর্থন নিয়ে তারা কখনো সরকার গঠন করবে নাl এখানেই সরকার গঠনে ডানপন্থী জোটের সমস্যা দেখা দিয়েছেl

 

 

গত ২৪ সেপ্টেম্বর সোমবার সুইডেনের নবনির্বাচিত এম পি দের কল করার মধ্যে দিয়ে শুরু হয় জাতীয় সংসদের অধিবেশনl শুরুতেই আগামী চার বৎসর পার্লামেন্টেকে প্রধান স্পিকারের দায়িত্ব পালন করবেন সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়l সুইডেনের রাজনীতিতে দীর্ঘদিন থেকে একত্রে সক্রিয় দুই জোট ডানপন্থী ও রেড গ্রিনজোট স্পিকার প্রার্থীর বিষয়ে একমত না হয়ে পৃথক পৃথকভাবে স্পিকার প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেl সুইডেনের অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক বিশ্লেষক ম্যাট্স কুনুতসনএবেপারে বলেন ডানপন্থী এলাইন্স ও মডারেট লিডার উল্ফ ক্রিস্টিয়ানসন হয়তোবা এখন তার প্রধানমন্ত্রী পদে একধাপ এগিয়ে যাবেনl কারণ অধিবেশনে স্পিকারপদে সুইডেন ডেমোক্রেটের সমর্থন নিয়ে ডানপন্থী জোট  প্রার্থীর জয়লাভ করার সম্ভবনা রয়েছেl

 

শেষ পর্যন্ত হয়েছেও তাইl ডানপন্থী জোটের প্রার্থী আন্দ্রেয়াস নরলেন সুইডেন ডেমোক্রেটের সমর্থন নিয়ে স্পিকার  পদে জয়লাভ করেনl এখন মডারেট প্রেসিডেন্টউল্ফ ক্রিস্টিয়ানসন প্রধানমন্ত্রী পদে একধাপ এগিয়ে আছেন বলা যেতে পারেl কারণ অধিবেশনে স্পিকার পদে সুইডেন ডেমোক্রেটের সমর্থন নিয়ে ডানপন্থী জোটপ্রার্থীর জয়লাভ করাতে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে ডানপন্থী জোটের প্রার্থী একইভাবে সুইডেন ডেমোক্রেটের সমর্থন নিয়ে জয়লাভ করার সম্ভবনা দেখা  দিয়েছেl

 

এদিকে লেবার পার্টির প্রেসিডেন্ট স্টেফান লোফভেন সমঝোতার মাধ্যমে জোটের বাহিরে গিয়ে সরকার গঠনের পক্ষে সবসময় বলে আসছেনl এবেপারে তিনিগ্রিন,সেন্টার ও লিবারেলকে সাথে নিয়ে সরকার গঠন করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেনl সুইডেন ডেমোক্রেটের প্রভাব আটকানোর জন্য এছাড়া আর কোনো বিকল্প নেইবলে তিনি মনে করেনl

 

 

প্রধান স্পিকার পদে সুইডেন ডেমোক্রেটের সমর্থন নিয়ে ডানপন্থী জোটের প্রার্থী  আন্দ্রেয়াস নরলেন জয়লাভ করার  পর  প্রথম ডিপুটি স্পিকার নির্বাচনে লেবারপার্টির প্রার্থী জয়লাভ করেনl পরবর্তীতে দ্বিতীয় ও তৃতীয় ডিপুটি স্পিকার নির্বাচনকালে সুইডেন ডেমোক্রেটের প্রার্থী বিয়র্ন সদারকে আটকানোর জন্য লেফট পার্টিদ্বিতীয় ডিপুটি স্পিকার পদে তাদের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেl লেবার পার্টি ও গ্রিন পার্টি লেফট পার্টির প্রার্থীকে সমর্থন জানায়l  অন্যদিকে ডানপন্থী জোট ভোটপ্রদানে  বিরত থাকলে লেফট পার্টির প্রার্থী সুইডেন ডেমোক্রেটের প্রার্থী বিয়র্ন সদারকে পরাজিত করেনl বিয়র্ন সদার তৃতীয় ডিপুটি স্পিকার পদে সেন্টার পার্টিরপ্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেও পরাজয় হনl এখানে উল্লেখযোগ্য যে বিগত পার্লামেন্টে বিয়র্ন সদার প্রথম ডিপুটি স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেনl  

 

গত ২৫ সেপ্টেম্বর পার্লামেন্টে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন পরিচালনা করেন নবনির্বাচিত স্পিকার আন্দ্রেয়াস নরলেনl অনেকে মনে করেছিলেন স্পিকার নির্বাচনের পরপ্রধানমন্ত্রী নির্বাচনকালে ডানপন্থী জোটের পক্ষে সংখ্যা গরিষ্ঠের সমর্থন পাওয়ার বেপারে হয়তো সমস্যা দেখা দিতে পারেl কারণ লিবারেল ও সেন্টার পার্টি সময়ইবলে আসছে সুইডেন ডেমোক্রেটের সমর্থন নিয়ে তারা সরকার গঠনে যাওয়ার পক্ষে নয়l এমতাঅবস্থা হয়তো লিবারেল ও সেন্টার পার্টি প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে ভোটদানেবিরত থাকবেl সোসিয়াল ডেমোক্রেট পার্টির প্রার্থী স্টেফান লোফভেনকে জয়লাভ করতে হলে ৩৪৯ আসনের মধ্যে ১৭৫ আসনের সমর্থনের প্রয়োজনl বর্তমানে তারপক্ষে রয়েছে ১৪৩ আসনl প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পার্লামেন্টের আস্থা পেতে হলে তার প্রয়োজন আরো ৩৩ আসনের সমর্থনl

 

 

কিন্তু বাস্তবে আর তা হয়নিl ঠিক স্পিকার নির্বাচনের মতই ডানপন্থী জোট প্রধানমন্ত্রী স্টেফান লোফভেনকে সুইডেন ডেমোক্রেটের সমর্থন নিয়ে অনাস্থা প্রস্তাবরাখলে তিনি পদত্যাগে বাধ্য হনl প্রধানমন্ত্রী পদে বহাল থাকার পক্ষে  ভোট পরে ১৪২ ও  বিপক্ষে ২০৪l তিনজন  পার্লামেন্ট  মেম্বার  এই  অধিবেশনে  অনুপুস্থিত  ছিলেনl 

 

বর্তমানে সুইডেনে কোনো নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী সরকার নেইl এমতাঅবস্থায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী স্টেফান লোফভীন একটি  অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের  দায়িত্ব পালনকরছেনl এখন যদি স্পিকার নির্বাচনের সময় যেভাবে সুইডেন  ডেমোক্রেটের সমর্থন  নিয়ে ডানপন্থী জোটের প্রার্থীকে জয়ী করা হয়  ঠিক একইভাবে সুইডেনডেমোক্রেটের সমর্থন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করা হয় তাহলে পরবর্তীতে বাজেট সহ সর্বক্ষেত্রে সরকারকে সুইডেন ডেমোক্রেটের উপর নির্ভরশীল হতে হবেঅনেকে মনে করছেনl

 

 

এখন  কে হতে পারেন সুইডেনের আগামী সময়কালের জন্য প্রধানমন্ত্রীl তাহলে কি সাবেক প্রধানমন্ত্রী স্টেফান লোফভেন পুনরায় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ফিরে আসছেন? সুইডেনের রাজনীতিতে চলছে এখন ক্ষমতার লড়াইl এধরণের পরিস্থিতিতে দেশটি পূর্বে আর কখনো পড়েনিl এমন একসময় ছিল যখন লেবার পার্টি এককভাবেপার্লামেন্টে  সংখ্যাগরিষ্টতা ছিলl পরবর্তীতে লেফট পার্টির সমর্থন নিয়েও তারা দীর্ঘদিন


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT