Main Menu

৭ কোটিতেও যুবরাজকে বিক্রি করেননি মালিক!

১৮ লাখ টাকায় বিক্রি হয়ে খবরেই শিরোনামে উঠে এসেছে বাংলাদেশের ‘রাজাবাবু’ নামের একটি ষাড়। তবে দামের দিক থেকে একে অনেক পেছনে ফেলে দেবে ভারতের ষাড় যুবরাজ; যাকে ৭ কোটি রুপি দিয়ে কিনতে চেয়েও ব্যর্থ হয়েছেন একাধিক ধনকুবের।

গরুদের মধ্যে ‘মুররাহ’ বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত জাতগুলোর একটি। এটি মূলত হরিয়ানা রাজ্যের রোথক ও জিন্দ জেলার প্রাণী। তবে উত্তরপ্রদেশের পশ্চিমেও এর দেখা পাওয়া যায়। আকারে বড় ও উন্নত হওয়ার কারণে পশুপালনকারীদের কাছে মুররাহ জনপ্রিয়। এই মুররাহ জাতেরই ষাড় যুবরাজ। সে একাই প্রতিদিন ২৫ হাজার রুপির খাদ্য গ্রহণ করে!

২০১৪ সালে এক পশু প্রতিযোগিতায় সেরা নির্বাচিত হয়ে ‘যুবরাজ’ ও তার মালিক দুজনই আলোচনায় চলে আসে। বিশালাকার এই ষাঁড়ের মা (গাভী) প্রায় ২৫ লিটার করে দুধ দিত। ভারতের ‘সর্ব ভারতীয় গবাদি পশুমেলার’ সেরা পশুর খেতাব পাওয়া যুবরাজের ওজন এক হাজার ৪০০ কেজি। উচ্চতা ৫ ফুট ৯ ইঞ্চি, দৈর্ঘ্যে ১৮ ফুট।

গড়পরতা ষাঁড়ের তুলনায় যুবরাজ দেখতে ছোটখাটো পাহাড়। অতিকায় যুবরাজ প্রতিদিন প্রায় ২৫ হাজার টাকার খাবার খায়। তার রক্ষণাবেক্ষণে আরও প্রায় ১০ হাজার টাকা ব্যয় হয়। ২০ লিটার দুধ, ৫ কেজি আপেল আর ১৫ কেজি ভালো জাতের মাংস সে প্রতিদিন খায়। স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে নিয়মিত ব্যায়াম করানো হয় যুবরাজকে। প্রতি সকালে প্রায় চার কিলোমিটার রাস্তা হাঁটানো হয় তাকে। ক্রিকেটার যুবরাজ সিং-এর নামে রাখা ষাড়টির নাম।

যুবরাজ যেহেতু ষাড়, এর থেকে কোনো দুধ পায়না এর মালিক করমভির সিং। যুবরাজকে কৃষিকাজের কাজেও লাগানো হয় না। কিন্তু এরপরও যুবরাজ প্রতিবছর তার মালিককে এনে দেয় ৫০ লাখ রুপি। কীভাবে? বীর্য উৎপন্ন করে!

২০১৪ সালের এক হিসাব মতে, যুবরাজ প্রায় এক লাখ ৫০ হাজার বাছুরের জনক। বর্তমানে সেটি আরও বেড়েছে। ভারতের দক্ষিণাঞ্চলে যুবরাজের বীর্য’র ব্যপক চাহিদা।

এই সেলিব্রেটি ষাঁড়টির দিকে ধনকুবেরদেরও নজর। ভারতের এক কৃষক তো নগদ সাত কোটি রুপিতে কিনে নেওয়ার আগ্রহ দেখিয়েছিলেন। কিন্তু যুবরাজের মালিক করমভির সিং তাতে রাজি হননি। কারণ যুবরাজ তার সন্তানতুল্য।


ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT