Main Menu

চট্টগ্রাম

দান করা হাতে এখন নিতে হচ্ছে দান

233629kalerkantho-20-09-17-AK-8

‘অং সান সুচিকে মনে করতাম রোহিঙ্গাদের আশা-ভরসা। মিয়ানমারে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে গৃহবন্দিত্ব থেকে শুরু করে বিভিন্ন নির্যাতন ভোগ করেছেন তিনি। মিলিটারিশাসিত মিয়ানমারে সুচিকে মনে করা হতো বার্মায় বসবাসরত সব নাগরিকের ঐক্যের প্রতীক। কিন্তু সুচি ক্ষমতায় এলে ঘটল এর উল্টো। সেনাশাসিত সময়ে রাখাইন রাজ্যে যে অত্যাচার-নির্যাতন হয়েছে, এর সমস্ত রেকর্ড ভাঙল সুচি বাহিনী। সন্ত্রাসী দমনের নামে সাধারণ রোহিঙ্গা মুসলিমদের বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেওয়া হচ্ছে। সহায় সম্বলহীন করা হচ্ছে। সর্বোপরি দেশত্যাগে বাধ্য করা হচ্ছে। আরাকানে মূলত গণহত্যা চালানো হচ্ছে। ’ কথাগুলো বলেছেন রাখাইন রাজ্যের দক্ষিণ মংডু থানার ডংখালী গ্রামের সাবেক চেয়ারম্যান (স্থানীয় ভাষায় হুক্কাট্টা) মোহাম্মদ বাসের। এমন অভিযোগের সঙ্গে সুর মিলিয়েছেন রাখাইনের বুচিডংবিস্তারিত


কক্সবাজার থেকে বাসের টিকিট করার সময় দরকার হবে পরিচয়পত্র!

coxbazar-police-restrictions-1126605972

সাম্প্রতিক কালে রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে কমবেশি সবাই সচেতন আছেন। সামাজিক মাধ্যম ও পত্রিকাগুলো নিয়মিতভাবে বিভিন্ন সংবাদ প্রচার করছে। প্রায় সাত লক্ষের বেশি রোহিঙ্গা মায়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন এবং এই সংখ্যা বাড়ছেই। তাদের জন্য তৈরি করা অস্থায়ী ক্যাম্পেও জায়গা সঙ্কুলান হচ্ছে না তাদের, এর সাথে যুক্ত হয়েছে বৈরী আবহাওয়া এবং খাদ্যের চরম অভাব। এরকম অবস্থায় টেকনাফ-কক্সবাজার-চকোরিয়া এলাকায় সড়কপথে চলাচলকারী যাত্রীদেরকে বিশেষ কিছু ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেছেন কক্সবাজার জেলা পুলিশ প্রশাসন। এই এলাকার বাসের টিকিট ক্রয় করার সময় যাত্রীদেরকে নিজ নিজ জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা জন্ম নিবন্ধন সনদ দেখাতে হবে। নিঃসন্দেহে এই কাজটি করা হচ্ছে যেন রোহিঙ্গা শরণার্থীরা কোনভাবে দেশের অভ্যন্তরে প্রবেশবিস্তারিত


রোহিঙ্গাদের ত্রাণ লুটে সক্রিয় ভয়াবহ সিন্ডিকেট

rohingya

বিপন্ন রোহিঙ্গাদের ত্রাণ নিয়ে রীতিমতো হরিলুট চলছে। নবাগত রোহিঙ্গাদের ত্রাণে ভাগ বসাচ্ছে পুরনোরা। আছে স্থানীয় প্রভাবশালী সিন্ডিকেটের দৌরাত্ম্যও। ত্রাণের গাড়ি পর্যন্ত লুট হয়ে যাচ্ছে আরাকান মেইন সড়ক থেকেই। অর্ধশত ভ্রাম্যমাণ আদালত এবং হাজারো আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার মধ্যেই ঘটছে এসব ঘটনা। প্রশাসনের তরফে ব্যবস্থা নেয়া হলেও প্রতিদিনই ঘটছে ত্রাণ নিয়ে বিভিন্ন অপ্রীতিকর ঘটনা। ত্রাণ লুটে মাঠপর্যায়ের রাজনৈতিক নেতাদের ছত্রচ্ছায়ায় গড়ে উঠেছে একাধিক সিন্ডিকেট। এ সিন্ডিকেটের সদস্যরা এতদিন নবাগত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার নামে বিভিন্ন কায়দায় ফায়দা লুটেছে। রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আনা গবাদি পশু সহ অন্যান্য সামগ্রী হয় পানির দামে, না হয় আশ্রয় দেয়ার নামে নিজের আওতায় নিয়েছে। তাদের সুযোগ-সুবিধা দেয়ার নামেবিস্তারিত


‘এমপি বদির লোক’ পরিচয়ে রোহিঙ্গাদের নিয়ে বাণিজ্য

rohinga-b-20170919173235

আমেনা খাতুন (২০) মিয়ানমারের আকিয়াব বলিবাজার এলাকার স্বচ্ছল পরিবারের মেয়ে। কৃষিপণ্য ও গরু-ছাগলে ভরপুর ছিল বাড়ির আঙ্গিনা। বলতে গেলে কোনো অভাব ছিল না বাড়িতে। ২৫ আগস্টের আগের রাত সব কিছু ওলট-পালট করে দিয়েছে তার। সরকারি বাহিনীর লুটতরাজ ও পাশবিকতায় এলাকাবাসীর জীবনে নেমে এসেছে কালো ছায়া। ঘরে ঘরে আগুন, নির্বিচারে বুলেট ও ধারাল অস্ত্রে ক্ষতবিক্ষত করার পাশাপাশি নারীদের ধর্ষণ এক অরাজক পরিস্থিতির মুখোমুখি করে সবাইকে। প্রাণ নিয়ে বাঁচাতে অন্যদের সঙ্গে বাংলাদেশে পালিয়ে এসে লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছেন তিনি। নিজ বাড়িতে এলাকার অভুক্তদের সহায়তা দিতেন তারা। তাই আশ্রিত জীবনে উপোস থাকলেও ত্রাণ বা অন্য কোনো সহায়তার জন্য কারও কাছে যেতে পারেনবিস্তারিত


রোহিঙ্গাদের পাশে অস্ট্রেলিয়ার বাংলা পত্রিকা স্বাধীন কন্ঠ

Shadhin Kantha

মিয়ানমারে জাতিগত নিধনের শিকার রোহিঙ্গারা প্রাণ হারানোর ভয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে এসে খাদ্য, বস্ত্র, বিশুদ্ধ পানি ও বাসস্থানের অভাবে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। তাদের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করল অস্ট্রেলিয়ার জনপ্রিয় বাংলা কমিউনিটি  পত্রিকা স্বাধীন কন্ঠ। কক্সবাজারের  পালংখালী সীমান্ত এলাকায়গত ১৬ সেপ্টেম্বর কয়েক হাজার রোহিঙ্গা পরিবারের মাঝে ত্রাণের প্যাকেট বিতরণ করা হয়। স্বাধীন কন্ঠর পক্ষ থেকে রোহিঙ্গাদের দেয়া ত্রাণের প্যাকেটে চাল, ডাল, তেল, গুঁড়া দুধ, মুড়ি, বিশুদ্ধ পানির বোতল ও খাবার স্যালাইন ছিল।  ত্রাণ বিতরণের খবর পেয়ে আগে থেকেই শরণার্থী শিবিরে রোহিঙ্গারা লাইন দিয়ে বসে থাকেন। অত্যন্ত সুশৃংখলভাবে খোলা স্থানে হুড়াহুড়ি ছাড়াই রোহিঙ্গাদের হাতে ত্রাণ তুলে দেয়া হয়। ত্রাণ বিতরণবিস্তারিত




ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT