Main Menu

অপরাজিতা

৫ বছরের বালিকার ৭০ বার অপারেশন!

1ORkDM_1502712990

সৌদি আরবের শাহাদ নামের ৫ বছর বয়সী এক বালিকা। গত তিন বছরে তার দেহে ৭০ বার অপারেশন করা হয়েছে। কিন্তু তার অবস্থার কোনো উন্নতি হয় নি। এমন দাবি করেছেন তার পিতা হোসেন আল খিদাইশ। তিনি বিদেশে নিয়ে মেয়ের যথাযথ চিকিৎসায় সহায়তা চেয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের। এ খবর দিয়েছে অনলাইন সৌদি গেজেট। শাহাদের পিতা আল খিদাইশ বলেছেন, শাহাদের বয়স যখন দুই বছর তখন সে একটি উত্তপ্ত ধাতবখ- গিলে ফেলে। এতে তার অন্ননালী ও পাকস্থলির মারাত্মক ক্ষতি হয়। তবে শাহাদ কি ধাতবখ- গিলেছে সে সম্পর্কে তিনি নির্দিষ্ট করে কিছু বলেন নি। তবে এটা বলেছেন, ওই ঘটনার পর শাহাদ আর স্বাভাবিক হয় নি। সেবিস্তারিত


‘লোভ-লালসা-পরকীয়া মধুর দিনগুলোকে নষ্ট করে দিয়েছে’-তমা

TOMA

নির্মাতা রনি। মেন্টাল ছবি দিয়ে আলোচনায় আসেন। এরপর জাজের একটি ছবি নির্মাণ করেন। রনির পথ চলাটা ক্রমশ মসৃণ হতে থাকে। আসন্ন কোরবানি ঈদে রংবাজ ছবি মুক্তি পেতে যাচ্ছে। যার শুরুটা ছিল রনির হাত ধরেই। পরিচালক রনি যখন এগিয়ে যাচ্ছিলেন তখন নানা প্রতিবন্ধকতাই সামনে এসে দাঁড়িয়ে যাচ্ছিল। চলচ্চিত্র সমিতি রনিকে নিষিদ্ধ করে। যার কারণে ‘রংবাজ’ থেকে সরে দাঁড়াতে হয় তাকে। তবে রনির এই পিছলে যাওয়াকে লোভ-লালসা আর পরকীয়ার ফল হিসেবেই দেখছেন তার স্ত্রী তমা। তমার সাথে এখন রনির মানসিক দূরত্ব অনেক। তমাও স্পষ্ট করলেন। লিখেছেন সোশাল মিডিয়া ফেসবুকে। কী লিখেছেন? তমা একটি ছবি পোস্ট করেছে লিখেছেন, এই একটা ছবির মধ্যেই অনেকবিস্তারিত


বাবার বিরুদ্ধে লোমহর্ষক নির্যাতনের অভিযোগ এনে ফেসবুকে মেয়ের ভিডিও

video

আহমেদ ফারিয়া নামের একটি অ্যাকাউন্ট থেকে প্রকাশ করা ভিডিওটিতে মেয়েটির দাবি, তার বাবার নাম ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।  তিনি মিরপুর একটি স্বনামধন্য রেস্তোরাঁর ডিরেক্টর।  ১০ মিনিট ৫৩ সেকেন্ডের এই ভিডিওটিতে মেয়েটি তার ওপর তার বাবার চালানো বিভিন্ন সময়ের নির্যাতনের বর্ণনার কথা জানান। ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওটি ফেসবুকে প্রকাশ করা হয়েছে ২১ জুলাই মধ্য রাতে।  ভিডিওটি এরই মধ্যে দেখেছেন ৩ লাখ মানুষ। তিনি বলেন, আমার বাবার নাম ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।  মিরপুর জিনজিয়ানের ডিরেক্টর।  তিনি আমাকে ছোট বেলা থেকেই অনেক মারছে।  উঠতে বসতে গালি গালাজ করছে।  সে আমার গলা পাড়া দিয়ে ধরছে।  আমি মরে যেতাম। ……… সে আমাকে গোসল করে দেয়ার সময় আমার শরীরেরবিস্তারিত


অটোরিকশা চালিয়ে ছেলের পড়ার খরচ যোগান এই মা

Mother

আসলে নিয়তি কখন কোথায় মানুষকে নিয়ে যায় তা বলা যায় না।  তবুও আমাদের বেঁচে থাকতে হয় জীবনের তাগিদে।  আর আমাদের যাদের সচল জীবন তারা হয়তো বুঝতে পারবেন না।  আসলে অচল জীবন কতটা ভয়ংঙ্কর জীবন।  কতটা কষ্ট করে সেই অচল জীবন সচল রাখতে হয়।  দিন আনে দিন খেয়ে যে মানুষ বেঁচে আছেন।  তাদের আসলে যে কোন পরিস্থিতেই নিজেকে প্রস্তুত রাখতে হয়।  আর যিনি শত কষ্টের মাঝেও বেঁচে থাকেন এবং বাঁচিয়ে রাখেন তিনিই সত্যিকারের যোদ্ধা।  তিনিই শত কষ্টের মাঝেও নিজের এক হাসি দিয়ে পৃথিবী সকল মন খারাপ মানুষের মন ভালো করে দিতে পারেন। হ্যাঁ তিনি নারী হয়ে পেরেছেন।  শত কষ্টের মাঝেও তিনিবিস্তারিত


ষাটোর্ধ্ব এক নারী রিকশাচালকের গল্প

female rickshaw driver

‘আল্লাহর দোহাই লাগে। আপনে আমার পিছু ছাড়েন। আমার পোলা আছে, মাইয়া আছে, অনেক আত্মীয়-স্বজনও আছে। তারা কেউ জানে না আমি রিকশা চালাই। মাইয়া মানুষ রিকশা চালায় শুনলে মানুষ খারাপ কইবো। আমার কারণে সমাজে তাদের মাথা নিচু হোক তা চাই না। তবে কারও দয়া করুণায় বাঁচতে চাই না। হের লাইগ্যা কষ্ট কইরা রিকশা চালাইয়া জীবন চালাই।’ বুধবার বেলা আনুমানিক ১টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল-২ এর অদূরে চাঁনখারপুলের রাস্তায় দাঁড়িয়ে অভিমানি কণ্ঠে প্রায় এক নিঃশ্বাসে এসব কথা বলছিলেন ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধা অটোরিকশাচালক। আপনার নাম কি, কোথায় থাকেন, কেন রিকশা চালাচ্ছেন, কত দিন চালাচ্ছেন, সন্তানাদি থাকতেও কেন বৃদ্ধ বয়সে রিকশা চালাচ্ছেন এসব প্রশ্নবিস্তারিত




ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT