Main Menu

জামিনে মুক্তি পেলেন মেয়র আরিফুল

184524_110

দুই বছর বন্দী থাকার পর কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন সিলেট সিটি করপোরেশনের সাময়িক বরখাস্ত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। আজ বুধবার সন্ধ্যায় সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে তিনি মুক্তি পান।

এর আগে সাবেক অর্থমন্ত্রী এ এম এস কিবরিয়া হত্যাসহ চার মামলায় জামিন পান তিনি।

২০১৩ সালের ১৫ জুন সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে নির্বাচিত হওয়ার প্রায় দেড় বছরের মাথায় আরিফুল হক ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর কারাবন্দী হন। দুই বছর পাঁচ দিন পর তিনি জামিনে মুক্তি পেলেন। কারাবন্দী হওয়ার পর ২০১৫ সালের ৭ জানুয়ারি তাকে মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র সুপার ছগির আহমদ বলেন, জামিনসংক্রান্ত কাগজপত্র বিকেল সাড়ে চারটার দিকে কারাগারে পৌঁছায়। এগুলো যাচাই-বাছাই করে ৫টা ১০ মিনিটে মুক্তি দেয়া হয়।

বিকেল সোয়া পাঁচটার দিকে হুইলচেয়ারে করে আরিফুল হককে কেন্দ্রীয় কারা গেটের সামনে আনা হয়। সেখানে অপেক্ষায় থাকা সিলেট সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর ও বিএনপি, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের নেতা-কর্মীসহ সাধারণ জনতা তাকে বরণ করে। তাকে ফুলের মালা দিয়ে এ সময় ‘আরিফ ভাই, আরিফ ভাই…’ বলে স্লোগান দেয় উপস্থিত জনতা। এ সময় তিনি জিপ গাড়িতে উঠে উপস্থিত সংবাদকর্মীদের কাছে কোনো প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত না করলেও হাত নেড়ে দোয়া চান।

গাড়িতে যাওয়ার সময় মোবাইলে আরিফুল হক বলেন, ‘আমি সিটি করপোরেশনের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি। আমাকে দুই বছরের বেশি সময় জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন রাখা হয়েছে। জনগণের দোয়ায় আমি মুক্ত হয়েছি।’

কেন্দ্রীয় কারা গেটের সামনে একটি জিপ গাড়ি দিয়ে আরিফুল হক হজরত শাহজালাল (রহ.)-এর মাজারে যান। সেখানে মাগরিবের নামাজ আদায় করে জেয়ারত শেষে কুমারপাড়ায় বাসায় ফেরেন।

আরিফুল হক চৌধুরী ২০১৩ সালের ১৫ জুন সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে জয়ী হন। হবিগঞ্জে সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়ার ওপর গ্রেনেড হামলার ঘটনায় হত্যা ও বিস্ফোরক মামলার অভিযোগপত্রভুক্ত আসামি হিসেবে ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর কারাবন্দী হন। এরপর থেকে তিনি সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে ছিলেন। ২০১৫ সালের ৭ জানুয়ারি স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় তাকে মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে।

আদালত সূত্র জানায়, উচ্চ আদালত থেকে কিবরিয়া হত্যা ও বিস্ফোরক মামলা দুটির জামিন পেলে সম্পূরক আরেকটি অভিযোগপত্রে সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের জনসভায় গ্রেনেড হামলার মামলায় অভিযুক্ত হন মেয়র আরিফুল হক। এ মামলায় গত বছরের ১১ ডিসেম্বর আরিফুলকে গ্রেফতার দেখানো হয়। ওই বছরের ২০ ডিসেম্বর এ মামলা থেকেও তিনি জামিন পেলে পরে তা স্থগিত করা হয়। সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে জামিন স্থগিত বিষয়ে শুনানি শেষে গতকাল মঙ্গলবার তা বহাল রাখা হয়।

Share Button





Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*



ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT