Main Menu

আলহামদুলিল্লাহ: ৩ দিনব্যাপী হজ ও ওমরাহ মেলা শুরু আজ

1481790040

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীতে শুরু হচ্ছে তিন দিনব্যাপী হজ ও ওমরাহ মেলা। হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে দশমবারের মতো এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। ১৭ ডিসেম্বর শনিবার পর্যন্ত চলবে মেলা।

রাজধানীর একটি হোটেলে গত মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে হাবের সভাপতি মোহাম্মদ ইব্রাহিম বাহার এ তথ্য জানান। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, হাবের মহাসচিব শেখ আবদুল্লাহ, সিনিয়র সহসভাপতি মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন, যুগ্ম মহাসচিব মোজাম্মেল হোসেন কামাল, অর্থসচিব আব্দুল ওয়াহাব মাসুম, সংস্কৃতি সচিব নূর মোহাম্মদ, সাবেক সহসভাপতি আবদুল কবির খান প্রমুখ।

লিখিত বক্তব্যে হাব সভাপতি বলেন, মোট হজযাত্রীর ৯৮ ভাগ বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ পালন করেন। তাই হজ গমনেচ্ছু লোকজনের মধ্যে যোগসূত্র স্থাপন, হজযাত্রীদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি, মধ্যস্বত্বভোগীদের বর্জন এবং হজসংক্রান্ত প্রশিক্ষণ প্রদানই মূলত হজ ও ওমরাহ মেলা আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য।

হজযাত্রীদের প্রতারিত হওয়ার বিষয়ে ইব্রাহিম বাহার বলেন, হজ এজেন্টকে দ্বিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার আগে হজযাত্রীদের পাসপোর্ট হস্তান্তর করা থেকে বিরত থাকতে হবে। কোনো অবস্থাতে কোনো মধ্যস্বত্বভোগী বা কাফেলার সাথে হজে গমনের জন্য আর্থিক লেনদেন করা যাবে না। বর্তমানে হজে যেতে হলে বাংলাদেশ বিমান ও সৌদি এয়ারলাইনসের মাধ্যমে যেতে হয়। হাব সভাপতি বলেন, হাইকোর্ট গত ৮ ডিসেম্বর ‘থার্ড ক্যারিয়ার’ ওপেন করার নির্দেশ প্রদান করেছেন। এ জন্য দ্রুত আদালতের রায় বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি তিনি আহ্বান জানান। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ২০১৭ সালের ১ সেপ্টেম্বর পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ জন্য ১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ সচিবালয়ে ২০১৭ সালের হজের প্রস্তুতি সভায় ধর্ম মন্ত্রণালয় ২০ ডিসেম্বর থেকে হজের প্রাকনিবন্ধন শুরুর জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সম্পন্নের নির্দেশনা দেয়। সংবাদ সম্মেলনে এর বিরোধিতা করে হাবের সভাপতি ইব্রাহিম বাহার বলেন, হজের প্রশাসনিক অনেক কর্মকাণ্ড বাকি রয়েছে। তা ছাড়া হজের প্যাকেজ ঘোষণা হয়নি। এখনো কোনো স্পষ্ট নীতিমালাও প্রকাশ করা হয়নি। এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে হয় আন্তঃমন্ত্রণালয়ের বৈঠকে। আমার জানা মতে, এ ধরনের কোনো বৈঠক হয়নি। সুতরাং এটা ‘হাওয়া’ থেকে আসা সিদ্ধান্ত। ৩০ জানুয়ারির পর হজের প্রাকনিবন্ধন কার্যক্রম শুরুর দাবি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে হাবের পক্ষ থেকে সরকারের কাছে ১৫ দফা দাবি তুলে ধরা হয়। দাবিগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো, হজ ও ওমরাহ নীতি সংশোধন করে যুগোপযোগী করা, হজ এজেন্সিদের লাইসেন্স নবায়নসহ বৈধ এজেন্সির তালিকা প্রকাশ, ২০১৫-১৬ সালে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া, হজযাত্রীদের সংখ্যা নির্ধারণসহ এজেন্সিপ্রতি ন্যূনতম কোটা আগের মতো সর্বনিম্ন ৫০ এবং সর্বোচ্চ ৩০০ নির্ধারণ করা, হজ প্যাকেজ ঘোষণা করা, গত বছরের প্রাক নিবন্ধিতদের ক্রম অনুসারে সাজানোর ব্যবস্থা করা, অনতিবিলম্বে ফ্লাইট শিডিউল ঘোষণা করা, ২০১৬ সালের টাকা দিয়েও যারা হজ করতে পারেননি তাদের টাকা ফেরত দেয়া, দুর্নীতির কারণে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে গঠিত কমিটির তদন্ত প্রতিবেদন দ্রুত দাখিল করা এবং দ্রুততম সময়ে সিদ্ধান্ত প্রদান করা, যৌক্তিক কারণে কোনো হজযাত্রী যেতে ব্যর্থ হলে তার স্থলে অন্যকে সুযোগ দেয়া, আগামী মওসুমে প্রত্যেক হজ এজেন্সিকে একটি এবং ২০০ জনের বেশি হজযাত্রীর জন্য দু’টি বার কোড দেয়ার আগের নিয়ম বহাল করা প্রভৃতি। সংবাদ সম্মেলনে হাব নেতারা অনলাইনে প্রাক নিবন্ধন ও নিবন্ধন ছাড়াই গত মওসুমে ৭৫০ ব্যক্তিকে হজে পাঠানোর সমালোচনা করে বলেন, অবিলম্বে দুর্নীতির সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া না হলে হাবের পক্ষ থেকে কার্যক্রমে বিরত থাকাসহ কঠোর কর্মসূচি পালন করা হবে।

Share Button





Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*



ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT