Main Menu

‘শামীম তোমার একটা ভুলেই এতো বড় ঘটনা’ আনিকার চিরকুট

15970218_1044057445721938_530316643_n

‘শামীম তোমার একটা ভুলেই এতো বড় ঘটনা’ একটি চিরকুটে এমন ক্ষোভ প্রকাশ করে দুই সন্তানকে হত্যার পর নিজে আত্মহত্যা করেন গৃহবধূ আনিকা (২৫)। রাজধানীর দারুস সালাম থানাধীন দিয়াবাড়ির সায়েদ মাস্টারের ২৯/১ নং বাসায় আনিকা-শামীম দম্পতি থাকতেন। মরদেহের সাথে পুলিশ এই চিরকুটটিও উদ্ধার করেছে।

ঘটনার পারিপার্শ্বিকতা ও চিরকুটের সূত্রধরে পুলিশ প্রাথমিক ভাবে নিশ্চিত আনিকা তার স্বামীর সাথে অভিমান করে আত্মহত্যা করেছেন। আত্মহত্যার আগে নিজেই তার অবুঝ দুই সন্তানকে হত্যা করেছেন।কি ছিলো শামীমের সেই ভুল? সে প্রশ্নের উত্তর জানতে পুলিশ খুঁজছে নিহত আনিকার স্বামী শামীমকে।আনিকা আত্মহত্যার আগে লেখা চিরকুটটির কপি হাতে এসেছে।

সেই চিরকুটে শামীমকে (স্বামী) উদ্দেশ্য করে আনিকা লিখেন, ‘শামীম তোমার একটা ভুলের জন্য এত বড় ঘটনা, তুমি ভেবেছ আমি শুধু শুনবো তা। তুমি সবার কথা ভাবো আমাদের কথা ভাবো, আমি সবাইকে ছেড়ে যাচ্ছি। থাকবো না, পৃথিবী ছেড়ে আর বলেছিলাম না, আমি যেখানে ওরাও সেখানে একটাই কষ্ট মা ভাই বোন নানি আর ওনেকের (অনেকের) মুখ দেখতে পালাম (পারলাম) না। ছেলে মেয়ে নেয়ে (নিয়ে) গেলাম সবাই ভালো থাকো।’

চিরকুটে আনিকা আরো লিখেছেন, ‘আমি এই দুই হাত দিয়ে ওদের খাওয়াছি (খাওয়াইছি), তেল দিছি আর আজ আমি সেই হাত দিয়ে মারলাম আমাক (আমাকে), তোমারা মাপ করে দেও (দিও), আমাদের কপলে (কপালে) এ ছিল ওরা দুই জন নিষ্পাপ, আমার মৃত্যুর জন্য কেও (কেউ) দাই (দায়ী) না। ইতি আনিকা, শামিমা, আব্দুল্লা।

প্রতিবেশি ফাতেমা বেগম (৪৫) কে জানান, ‘আমি ওদের পাশের রুমে ১০ বছরেরও বেশি ছিলাম। এখন পাশেই আরেকটি বাসায় থাকি। প্রায় দের বছর আগে আনিকা-শামীম (টিনশেড) ঘর ভাড়া নেন। মেয়ে শামিমা (৬) ও ছেলে আবদুল্লাহকে (৩) নামে তাদের দুই সন্তান ছিল। বাচ্চারা সারা দিন আমার বাসায় থাকতো, খেলতো।‘

‘ওদের মধ্যে (অনিকা ও শামীম) কখনো তেমন মারামারি বা ঝগড়াঝাঁটি করতে দেখিনি। তবে শামীমের দ্বিতীয় স্ত্রী ছিলো। আগের স্ত্রীর সাথে ডিভোর্স হয়েছে বলে শুনেছি। তারপর আনিকাকে বিয়ে করেছে।‘একই তথ্য জানান আরেক প্রতিবেশি ভাড়াটিয়া মাসুদা।তিনিসহ অন্য প্রতিবেশীরা কেউই বিশ্বাস করতে পারছেন না এই ঘটনা।মাসুদা বলেন, ‘অভাবের সংসারে ঝগড়া-বিবাদ থাকলেও। সন্তানকে হত্যা করে আত্মহত্যার করার মত কিছু দেখিনি।‘

দারুস সালাম থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) ফারুকুল আলম জানান, ‘ঘটনার পারিপার্শ্বিকতা ও চিরকুটের সূত্রধরে পুলিশ প্রাথমিক ভাবে নিশ্চিত আনিকা তার স্বামীর সাথে অভিমান করে আত্মহত্যা করেছেন। আত্মহত্যার আগে নিজেই তার অবুঝ দুই সন্তানকে হত্যা করেছেন।কি ছিল শামীমের সেই ভুল? সে প্রশ্নের উত্তর জানতে পুলিশ খুঁজছে নিহত আনিকার স্বামী শামীমকে।

Share Button







ADVERTISEMENT

Contact Us: 8 Offtake Street, Leppington, NSW- 2569, Australia. Phone: +61 2 96183432, E-mail: editor@banglakatha.com.au , news.banglakatha@gmail.com

ADVERTISEMENT